হঠৎ পরীমনি হাসপাতালে, কিন্ত কেন?

চিত্রনায়িকা পরীমণি কারা’গার থেকে মুক্তি পেয়েছেন সবে ১২ দিন। কারা’গার থেকে মুক্তির পর তরুণ নির্মাতা ইফতেখার শুভর ‘মুখোশ’ দিয়ে চলচ্চিত্রের কাজে ফিরেছেন পরীমণি। কাছের মানুষজনের সঙ্গে উপভোগ করছেন মুক্ত জীবন। কিন্তু হঠাৎ তাকে দেখা গেলো রাজধানীর একটি হাসপাতালে। আজ রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) ‘বিকালে ফেসবুকে একাধিক ছবি পোস্ট করেন পরীমণি।

কবিরাজ: তপন দেব,সাধনা ঔষধালয় । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

যেগু’লো তোলা হয়েছে বসুন্ধ’রা আবাসিক এলাকায় অবস্থিত এভারকেয়ার হাসপাতালে। ছবিতে পরীর গায়ে দেখা গেছে ধূসর সবুজ রঙের পাতলা টপস, মুখে মাস্ক এবং চোখে সাদা চশমা। ক্যাপশনে এ নায়িকা লিখেছেন, ‘এই একটার সাথে আমা’র কোনো ব্রেকআপ নাই।’

কথাটি যে তিনি হাসপাতালকে ইঙ্গিত করে বলেছেন, তা বোঝাই যায়। শারীরিক অ’সুস্থতার কারণে প্রায়ই হাসপাতালে ছুটতে হয় তাকে। ভার্টিগো নামের একটি রোগে আ’ক্রা’ন্ত তিনি। অনেক দিন ধরেই রোগটি তাকে ভোগাচ্ছে। এ জন্য ভারতে গিয়ে পর্যন্ত চিকিৎসা নিয়েছেন নায়িকা। কিন্তু পুরোপুরি আরোগ্য লাভ করতে পারেননি। ধারণা করা হচ্ছে, ওই রোগের জন্যই রবিবার হাসপাতালে গিয়েছেন পরীমণি।

প্রসঙ্গত, শুটিং নয়, ‘মুখোশ’ চলচ্চিত্রের ডাবিং দিয়েই যাত্রা শুরু করেছেন প্রতিবাদী এই অ’ভিনেত্রীর। গত মঙ্গলবার ও বুধবার ঢাকার একটি স্টুডিওতে ডাবিং করেছেন তিনি। শোনা যাচ্ছে, খুব শীঘ্রই শুটিংয়ে অংশ নিবেন পরীমণি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *