এবার মুসলিমবিরোধী কুখ্যাত বৌদ্ধ নেতাকে মুক্তি দিল মিয়ানমারের সেনাবাহিনী

অং সান সু চির সরকারের সময় রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে বন্দি থাকা মিয়ানমারের মুসলিমবিরোধী কুখ্যাত বৌদ্ধ নেতা অশ্বীনি ভিরাথুকে মুক্তি দিয়েছে দেশটির জান্তা সরকার। মিয়ানমারে ধর্মীয় বিদ্বেষ, বিশেষ করে রোহিঙ্গাবিরোধী অবস্থান চরম পর্যায়ে নিয়ে যেতে ভিরাথুর ভূমিকার জন্য বিখ্যাত টাইম ম্যাগাজিন তাকে ‘বৌদ্ধ সন্ত্রাসীদের প্রতিমুখ’ হিসেবে তুলে ধরেছিল। সোমবার মিয়ানমারের সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে তাকে মুক্তি দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ভিরাথুকে সেনাবাহিনীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে বিবৃতিতে জানিয়েছে সেনাবাহিনী। এর বেশি আর কিছু জানানো হয়নি ওই বিবৃতিতে। ভিরাথু দেশটির কেন্দ্রীয় শহর মান্দালায় বাস করেন। ২০০১ সালে তিনি মুসলিমবিরোধী ৯৬৯ গ্রুপের সঙ্গে জড়িত থাকায় প্রথমবারের মতো ২০০৩ সালে কারাবন্দি হন।

২০১০ সালে তাকে মুক্তি দেয়া হয়। এর দুই বছর পর তার নেতৃত্বেই বৌদ্ধ এবং দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যের সংখ্যালঘু মুসলিম জনগোষ্ঠী রোহিঙ্গাদের মধ্যে দাঙ্গা শুরু হয়। সে সময় ভিরাথু জাতীয়তাবাদী সংগঠন তৈরি করে মুসলিমদের বিরুদ্ধে সহিংসতা ছড়ানো শুরু করেন। সেই সঙ্গে তিনি আন্ত ধর্মীয় বিয়ে কঠিন করতে আইন প্রণয়নে ভূমিকা রেখেছিলেন।

২০১৭ সালে মিয়ানমারের সর্বোচ্চ বৌদ্ধ কর্তৃপক্ষ তার ধর্ম প্রচার এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে দেয়। ধর্মীয় বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগে ২০১৮ সালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ভিরাথুর অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়। ৫৩ বছর বয়সী বৌদ্ধ সন্ন্যাসী ভিরাথু নিয়মিত জাতীয়তাবাদী সমাবেশ করছিলেন। তিনি অং সান সু চি সরকারের দুর্নীতির অভিযোগ সামনে আনেন ও সেনাবাহিনীর সংবিধান পুনর্লিখনের বিরুদ্ধে ক্ষুব্ধ হন।

গত বছরের শেষের দিকে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। তার বিরুদ্ধে মামলা হয় ২০১৯ সালে সুচি সরকারের সময়। প্রতিনিয়ত সরকারের বিরুদ্ধে ঘৃণা ও অবমাননাকর তথ্য ছড়ানো এবং উত্তেজনাপূর্ণ বক্তব্য দেয়ার অভিযোগ আনে তৎকালীন সরকার।

চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুথানের মাধ্যমে সু চি সরকারকে উৎখাত করে ক্ষমতা নেয় সেনাবাহিনী। এরপর থেকে দেশটিতে চলতে থাকে ব্যাপক বিক্ষোভ। বিক্ষোভ দমনে সামরিক বাহিনীর গুলিতে এখন পর্যন্ত এক হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে।

কবিরাজ: তপন দেব,সাধনা ঔষধালয় । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে চালানো সহিংসতার সময় সেনাবাহিনীকে উসকে দিয়েছিলেন ভিরাথু। ওই ঘটনায় মিয়ানমার ছেড়ে সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা আশ্রয় নেয় বাংলাদেশে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *