জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পরীমনি ভালো এবং শিল্পমনা: কাজী হায়াৎ

জীবনে বসন্ত এসেছে, ফুলে ফুলে ভরে গেছে মন- শীর্ষক গানের মতোই সময়ের আলোচিত জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পরীমনির জীবনে এখন বসন্ত! যদিও সময় বলছে এখন ভাদ্র মাস। কিন্তু ব্যক্তিগত জীবনে পরীমনির এখন বসন্তকাল, বলা যেতে পারে।

দীর্ঘ ২৭ দিনের কারাভোগ শেষে গতকাল বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) তিনি জেলখানা থেকে জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। এ যেন তার নবজন্ম! বাড়িতে ফেরার পর থেকেই তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাতে আসেন শত শত শুভাকাঙ্ক্ষীরা। সময়ের আলোচিত এই অভিনেত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন তারা।

এদিকে পরীমনি মুক্তি পাওয়ায় আনন্দিত ঢালিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা-নির্মাতা কাজী হায়াত। তিনিই প্রথম ব্যক্তি, যিনি পরী গ্রেফতার হওয়ার পর তার সমর্থনে আওয়াজ তুলেছিলেন। এবার কাজী হায়াত কিছু পরামর্শ দিলেন এই অভিনেত্রীকে।

তিনি বলেন, পরীমনিকে এখন দেখে-শুনে পথ চলতে হবে। আমাদের দেশ তো পুরুষশাসিত। তাই অনুরোধ, দেখে-শুনে যেন চলাফেরা করে। জীবনে অনেক সময় আছে। এখনো অনেক দেখার বিষয় আছে। দেখে শুনে যদি চলতে পারে, তাহলে ওর ভবিষ্যৎ অনেক ভালো। তার আশপাশের মানুষকে চিনতে হবে। কারা তার প্রিয়জন, আর কারা শুধুই প্রয়োজন।

ইন্ডাস্ট্রির অন্যদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে কাজী হায়াত বলেছেন, সবার প্রতি আমার অনুরোধ- যারা তাকে নিয়ে কাজ করবে, তারা যেন ওকে সঠিকভাবে গাইডও করে। আর কেউ যেন তাকে মিসগাইড না করে। আমি তো আগে চিনতাম না, গ্রেপ্তারের পর চারদিক থেকে যতটা শুনেছি- মেয়েটি এমনিতে ভালো, শিল্পমনা।

আমি এমনও শুনেছি, মেয়েটি প্রচণ্ড হৃদয়বান। আমাদের দেশের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে এমন হৃদয়বান মেয়ে আগে আসেনি। মেয়েটি খুব দানশীল। আমার দীর্ঘ অভিজ্ঞতা থেকে শুধু বলতে চাই, পরীমনিকে সঠিক গাইডেন্স দিয়ে ধরে রাখতে পারলে চলচ্চিত্রও উপকৃত হবে, পরীমনির জীবনও ভালো হবে।

কবিরাজ: তপন দেব,সাধনা ঔষধালয় । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

ওর মধ্যে শিল্পীসত্ত্বা আছে। শিল্পীসত্ত্বাকে বাঁচিয়ে রেখে গাইড করলে পরীমনিও ভালো করবে। উল্লেখ্য, গত ৪ আগস্ট পরীমনিকে আটক করে র‌্যাব। এরপর তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দেওয়া হয়। সেই মামলায় তিনি গত ২৭ দিন থানা ও কারাগারে কাটিয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *