এবার জানা গেলো আমির-কিরণের ১৫ বছর সংসার ভাঙ্গার কারণ

দীর্ঘ ১৫ বছরের দাম্পত্যে ইতি টানতে চলেছেন আমির খান এবং কিরণ রাও। শনিবার সকালে দু’জনেই নেটমাধ্যমে একটি বিবৃতি জারি করে জানিয়েছেন সে কথা। আমির ও কিরণ তাদের বিবৃতিতে বলেন, এই সুন্দর ১৫টি বছর আমরা একসঙ্গে কাটিয়ে আজীবন মনে রাখার মতো কিছু অভিজ্ঞতা ও আনন্দ সঞ্চয় করেছি।

আমাদের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল কেবল বিশ্বাস, সম্মান ও ভালোবাসা থেকে। এই বক্তব্য থেকে ধারণা করা যায়, আমির খান ও কিরণের মধ্যে অতীতে যেই বিশ্বাস, ভালোবাসা ও সম্মানবোধ ছিল, তাতে ঘাটতি দেখা দিয়েছে। সে কারণেই হয়ত তারা বিচ্ছেদের পথ বেছে নিলেন।

বিবৃতিতে আমির ও কিরণ যৌথভাবে আরো বলেছেন, আমরা এখন জীবনের নতুন একটি অধ্যায় শুরু করতে চাই। তবে সেটা স্বামী-স্ত্রী হয়ে নয়; বরং সন্তানের পিতা-মাতা এবং পরিবার হয়ে।

বিচ্ছেদের পরিকল্পনার কথা জানিয়ে তারা বলেন, আমরা বেশ কিছু দিন ধরেই বিচ্ছেদের পরিকল্পনা করছিলাম। অবশেষে এখন সিদ্ধান্তটিকে বাস্তবে রূপ দেওয়ায় স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছি। আলাদা হয়ে গেলেও আমরা আজাদের (সন্তান) জন্য একনিষ্ঠ বাবা-মা হয়ে থাকব। সে আমাদের দু’জনের কাছেই বেড়ে উঠবে।

আমির খান ও কিরণ রাও তাদের ব্যক্তিগত সম্পর্কের বাইরেও কাজ করেছেন। কিরণের প্রযোজনায় আমির অভিনয় করেছেন, আবার তারা একসঙ্গে একটি সংস্থাও পরিচালনা করে আসছিলেন। ভবিষ্যতে তাদের এই কর্মযজ্ঞ কীভাবে চলবে, তাও জানিয়ে দিয়েছেন আমির-কিরণ। তারা বলেন, আমরা যৌথভাবে সিনেমা।

কবিরাজ: তপন দেব,সাধনা ঔষধালয় । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

পানি ফাউন্ডেশন এবং অন্যান্য প্রোজেক্টেও কাজ করে যাবো। পরিবার, বন্ধু ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের ধন্যবাদ জানিয়ে তারা বলেন, সবাইকে অনেক ধন্যবাদ আমাদের সম্পর্কের এই বিবর্তনকে সমর্থন এবং বোঝার জন্য। আপনাদের সমর্থন ছাড়া আমরা এই সিদ্ধান্ত নিতে পারতাম না।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *