৭ বছর ইমোতে প্রেমের ব’লি হতে হল এই তরুণীর।

ইমোতে পরিচয়ের পর সৌদি প্রবাসীর সঙ্গে ৭ বছর ধরে প্রেম চলছিল মুন্সিগঞ্জের এক তরুণীর। বনিবনা না হওয়ায় আ’ত্মহ’ত্যা পথ বেছে নিলেন ফাতেমা। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে মুন্সিগঞ্জ মিরকাদিম পৌরসভা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নি’হত ফাতেমা আক্তার মিরকাদিম পৌরসভার কাঁঠালতলা এলাকার আহম্মেদ হোসেনের মেয়ে।

স্থানীয়রা জানায়, ফাতেমা’র সঙ্গে গত সাত বছর ধরে সৌদি প্রবাসী মো. ফারহান সবুজ নামের এক ছেলের সঙ্গে ইমোতে প্রেমের সম্পর্ক চলছিল। এর মধ্যে কখনো তাদের দেখা হয়নি। ফাতেমাকে অন্য কোথাও বিয়ে দিতে চাইলে সৌদি প্রবাসী ফারহান নানানভাবে ব্ল্যা’কমেইল করে।

গত স’প্ত াহে পারিবারিকভাবে তাদের বিয়েও ঠিক হয়। কিন্তু গত তিনদিন আগে ফাতেমাকে ফারহান বিভিন্ন কারণে সন্দে’হ করে বকাঝকা দেয়। পরে ফাতেমা সহ্য করতে না পেরে ফাঁ’স দেয়। নি’হতের মা জানান, গত স’প্ত াহে পারিবারিকভাবেই ফারহানের সঙ্গে মেয়ের বিয়ে ঠিক হয়েছিল।

কিন্তু গত তিনদিন ধরে ফাতেমা খাবার খায় না। জিজ্ঞাসা করলে উত্তরও দেয় না। বৃহস্পতিবার ১টার দিকে রান্না বসিয়ে পুকুরে পানি আনতে গেলে এই সুযোগে ফাতেমা ঘরের দরজা জানালা বন্ধ করে ফাঁ’সি দেয়।

কবিরাজ: তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

পরে ছোট ছেলে দরজা ভেঙে ফাতেমাকে উ’দ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃ’ত ঘোষণা করেন। হাতিমা’র পুলিশ ফাঁ’ড়ির এসআই এনামুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লা’শটি ময়নাতদ’ন্তের জন্য মর’্গে পাঠানো হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *