এবার মায়ের এক ঘণ্টার লড়াইয়ে নতুন জীবন পেল ২৩ দিনের হাফসা

হঠাৎ শ্বাসকষ্ট শুরু হয় শিশু হাফসার। বিষয়টি বুঝতে পেরে তাৎক্ষণিক তাকে নিয়ে হাসপাতালে ছোটেন বাবা-মা। হাসপাতালের পথে রিকশায় বসে বারবার মেয়েকে ডাকছেন বাবা সজল। একই সময় হাফসার মুখে মুখ দিয়ে কৃত্রিমভাবে বাতাস দিয়ে শ্বাস-প্রশ্বাস সচল রাখার চেষ্টা করছেন মা রেশমা।

রাজশাহীর মহানগরীর বোয়ালিয়া পাড়ার এমন একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে ফেসবুকে। এই ঘটনার দুইদিন পর জানা গেল বেঁচে আছে ২৩ দিন বয়সী হাফসা। মায়ের এক ঘণ্টার লড়াই আর চিকিৎসকদের আপ্রাণ চেষ্টায় সুস্থ আছে সে।

চিকিৎসকরা জানান, শনিবার সকালে হঠাৎ শ্বাসকষ্ট শুরু হয় শিশু হাফসার। এক পর্যায়ে সে নিথর হয়ে পড়ে। রেশমা বিষয়টি বুঝতে পেরে কৃত্রিমভাবে শ্বাস দিতে দিতে হাসপাতালে নিয়ে যান।

হাসপাতালের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে শিশুটির চিকিৎসা শুরু হয়। মায়ের বুদ্ধিমত্তা আর চিকিৎসক-নার্সদের তাৎক্ষণিক উদ্যোগে নতুন জীবন পায় শিশুটি।

কবিরাজ: তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিডেগিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানি জানান, প্রথমে তিনি ঘটনাটি জানতে না। সোমবার জানার পর খোঁজ নিয়েছেন- তাৎক্ষণিক অক্সিজেন দিতে পারায় শিশুটিকে রেসপন্স করেছে। এক ঘণ্টা চিকিৎসার পর সুস্থ হয়েছে। এখন পর্যন্ত সে ভাল আছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *