কোটি টাকা নিয়ে স্বামী খুঁজছেন বড়লোক ডিভোর্সি নারী ১ বাচ্চার মা

নিঃসঙ্গতার অবসান ঘটাতে কোটিপতি না’রীরা বিয়ের জন্য স্বা’মী খুঁজছেন। বিয়ের ক্ষেত্রে বিদেশি স্বা’মী এবং তাদের সন্তানদের নাগরিকত্ব পাবার আ’ই’ন সংস্কার হওয়ার পরই তারা এ অ’নু’স’ন্ধা’নে নেমেছেন। খবর- হাফিংটন পোস্ট।এদেরই একজন ৪০ বছরের হেসা।তিনি বিয়ের ইচ্ছে ব্যক্ত ক’রে বলেন,

কবিরাজ: তপন দেব,সাধনা ঔষধালয় । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌ’ন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

তার বাবা মা’রা যাওয়ার পর উ’ত্তরাধিকার সূ’ত্রে প্র’চু’র ধ’নসম্পদের মালিক। তাকে সম্মান করবেন এমনই এক স্বা’মী খুঁজছেন তিনি।২০১২ সালে সৌদি সাময়িকী’ রোয়া এক প্রতিবেদন বের হয়।এতে বলা হয়, এক না’রী ভাল স্বা’মীর খোঁজে ৫০ লাখ সৌদি রিয়াল নিয়ে অ’পেক্ষা ক’র’ছে’ন।যিনি বিবা’হিত জীবন ও দায়িত্বকে গু’রু’ত্বের স’ঙ্গে বিবেচনা করবেন।

২০১৪ সালে আমিরাতের একটি নিউজ সাইট জানায়, অনেক সৌদি কোটিপতি না’রী টুইটারে বিয়ের আ’গ্রহের কথা জানান।এমন একটি পোস্টে সৌদি এক না’রী জানান, তিনি তা’লাকপ্রা’প্তা ও নিঃস’ন্তান। তিনি এমন একজন স্বা’মী খুঁজছেন যিনি তাকে ভালবাসবেন।উত্তরাধিকার সূ’ত্রে তিনি একশ মিলিয়ন রিয়ালের মালিক।

৩৯ বছর ব’য়সী এই না’রী তারপারিবারিক ব্য’ব’সা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা ক’র’ছে’ন।এর আগে ২০০৭ সালে এক সৌদি না’রী স্বা’মী খুঁজছিলেন। চা’হিদা বলতে তিনি স্বা’মীর ব্যক্তিত্বকেই প্রাধান্য দেয়ার কথা বলেন। তার সম্পদের পরিমাণ ছিল ৭০ লাখ রিয়াল। বিয়ের উদ্দেশ্য হল এটা যে, স্বামী-স্ত্রী’ দুজনেই পূর্ণরূপে সন্তু’ষ্ট হবে,

সুখী হবে ওদের দু’জনের জীবনই। শারীর এবং মানসিকভাবে একা পড়ে যাওয়াকে স্ত্রী’রা কখনই সহ্য করতে পারে না। তবে, মুদ্রার উল্টা পিঠও আছে। নতুন খবর হচ্ছে, পাবনার ঈশ্বরদীতে দেবরের সঙ্গে বড় ভাবীর প’র;কী’’য়া। বারবার বিচার সালিস। এরপর শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে ভাড়া বাসায় ওঠার ১০ দিনের মা’থায় ব্যবসায়ী স্বামীর র’হস্যজনক মৃ’;ত্যু।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নি;’হ;তের স্ত্রী’ ও দেবরকে পু;লি;শি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ঈশ্বরদীর রূপনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *