এ দুনিয়াতেই ‘জান্নাতের বাগান’ ঘোষণা করেছেন বিশ্বনবী।

মহান রাব্বুল আলামিন জান্নাতের বাগান রেখেছেন পৃথিবীতেই। এ দুনিয়ার একটি স্থানকে ‘জান্নাতের বাগান’ ঘোষণা করেছেন বিশ্বনবী। বাস্তবেও সেখানে জান্নাতি পরিবেশ বিরাজ করে। রাসূলুল্লাহ (সা.) কে দাফনের মোবারক স্থানকে অনেকেই রওজা বা বাগান বলে সম্বোধন করে থাকেন। তবে রাসূলুল্লাহ (সা.) একটি স্থানকে জান্নাতের বাগান বলে ঘোষণা করেছেন। হাদিসে এসেছে হজরত আবু হুরায়রা (রা.) বর্ণনা করেন, রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন-
مَا بَيْنَ بَيْتِي وَمِنْبَرِي رَوْضَةٌ مِنْ رِيَاضِ الْجَنَّةِ وَمِنْبَرِي عَلَى حَوْضِي

আমার ঘর (বর্তমান দাফনের স্থান) এবং আমার মিম্বরের মাঝের জায়গা (রাওজাতুম মিন রিয়াজিল জান্নাহ) জান্নাতের বাগানগুলোর একটি বাগান। আর আমার মিম্বর আমার হাওজের উপর অবস্থিত।’ (বুখারি)

রিয়াজুল জান্নাহ
রাসূলুল্লাহ (সা.) এর হুজরা মোবারক বা মিম্বারের পাশের জায়গাটি রিয়াজুল জান্নাহ বা বেহেশতের বাগান হিসেবে পরিচিত। এ স্থানে নামাজ আদায়ের বিশেষ ফজিলত রয়েছে। মসজদে নববীর কার্পেট লাল রংয়ের হলেও রিয়াজুল জান্নাহ অংশের কার্পেটের রং সাদা।

মসজিদে নববীর ভেতরের রিয়াজুল জান্নাহ বা জান্নাতের বাগানের অংশে কয়েকটি স্তম্ভ রয়েছে। সেগুলোকে রহমতের স্তম্ভ বা খুঁটি বলা হয়। রাসূলুল্লাহ (সা.) এর তৈরি মসজিদে খেজুর গাছের খুঁটিগুলোর স্থলে উসমানী সুলতান আবদুল মাজিদ পাকা স্তম্ভ নির্মাণ করেন। এগুলোর গায়ে মর্মর পাথর বসানো এবং স্বর্ণের কারুকাজ করা। প্রথম কাতারে ৪টি স্তম্ভের লাল পাথরের এবং পার্থক্য করার সুবিধার জন্য সেগুলোর গায়ে নাম লেখা রয়েছে।

কবিরাজ: তপন দেব,সাধনা ঔষধালয় । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

পবিত্র নগরী মদিনার মসজিদে নববীর বর্তমান মেহরাব তথা রাসূলুল্লাহ (সা.) এর সমাধিস্থল সংলগ্ন ডান পাশের স্থানটিই দুনিয়ার জান্নাতের বাগান। হজ, ওমরাহ ও জিয়ারতকারীরা এ স্থানে অবস্থান নামাজ ও ইবাদত-বন্দেগি করে নিজেদের ধন্য করেন।

সুতরাং রওজা বা জান্নাতের বাগান হলো রাসূলুল্লাহ (সা.) এর মসজিদে অবস্থিত খুতবার মিম্বার এবং তার ঘর (বর্তমানে সমাধিস্থল) এর মধ্যস্থিত স্থানই রওজা বা (রিয়াদুল জান্নাহ বা জান্নাতের বাগান)। আল্লাহ তায়ালা মুসলিম উম্মাহর সবাইকে দুনিয়ার জান্নাতের বাগান দেখার ও তাতে ইবাদত-বন্দেগি করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *