অভিনেত্রী মিথিলার আক্ষেপঃ বাংলাদেশের মানুষ বলছে আমি নাকি ‘চরিত্রহীন মা।

বাংলাদেশের মানুষের প্রতি আক্ষেপ করে অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশিদ মিথিলা বলেছেন, বাংলাদেশে তো মানুষের সবচেয়ে বেশি রাগ আমার ওপর। মানুষ প্রশ্ন করছেন মেয়ে হয়ে কেন আমি বিবাহ বিচ্ছেদ করলাম? মেয়েদের নাকি এসব করতে নেই। তিনি বলেন, তাহসানের ওপর কিন্তু মানুষের রাগ নেই। রাগ যত আমার ওপর। আমি কেন বিয়ে করলাম? আর সৃজিত তো ইসলাম ধর্মীও নয়।

আমি বাংলাদেশের সংস্কৃতিকে কলুষিত করেছি। আমি নাকি ‘চরিত্রহীন মা’। এই ‘অসভ্য’ মা ‘অসভ্য’ জাতির জন্ম দেবে। সম্প্রতি কলকাতার পত্রিকা আনন্দবাজারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন এ অভিনেত্রী। বিচ্ছেদের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কটাক্ষের শিকার হওয়ার বিষয়টি সামনে এনে মিথিলা বলেন, আমাকে, সৃজিতকে নিয়ে বা আমার বিয়ে নিয়ে আজ নয়।

ভারত আর বাংলাদেশ দুদিকেই নেটমাধ্যমে অজস্র কটাক্ষের শিকার হচ্ছি। তবে সাম্প্রতিক কালে অরুচিকর কথা বেড়েছে। আমাকে ‘অসভ্য’ বলে মানুষ নিজে যে অসভ্যতার পরিচয় দিচ্ছে, সেটা আগামী পৃথিবীর জন্য একেবারেই স্বাস্থ্যকর নয়। এই অভিনেত্রী আরো বলেন, এবার কিন্তু সময় এসেছে আমরা সবাই একসাথে মিলে, অনলাইন তথা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই হয়রানি বন্ধ করার উদ্যোগ নিই।

হয়রানির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হোক সমস্বরে। সাবেক স্বামী তাহসান প্রসঙ্গে মিথিলা বলেন, তাহসান আমার প্রাক্তন স্বামী। আমরা আজও বন্ধু। আমাদের রোজ কথা হয়। মানুষকে বুঝতে হবে আমরা দু’জনে একই বাচ্চার বাবা-মা। আমাদের সম্পর্কটা এখন বন্ধুর মতো। আর এই সম্পর্ক আয়রার জন্য খুব জরুরি।

কবিরাজ: তপন দেব,সাধনা ঔষধালয় । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

এদিকে স্বামী সৃজিত মুখার্জি প্রসঙ্গে মিথিলা জানিয়েছেন, বিয়ের পরে আমি আর সৃজিত ৭ থেকে ৮ মাস একসঙ্গে থেকেছি। সীমান্ত খুললে জুলাইয়ে কলকাতায় যাওয়ার চেষ্টা করবেন তিনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *