Categories
Uncategorized

২ মাস গৃহব’ন্দী থাকার পর সুখবর পেলো বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

ক’রোনা এখনো জেঁকে বসে আছে। ভ’য়াবহ ও কঠিন এই ভাই’রাস সং’ক্র’মণ কমার কোনোই লক্ষ্মণ নেই। জীবনযাত্রা পুরোপুরি স্থবির। বিশ্বে প্রায় সব দেশেই নাগরিক জীবন থেমে আছে। সব কিছুই বন্ধ। তবে এর মধ্যেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে ইউরোপে ফুটবল লিগ শুরু হচ্ছে।

জার্মানিতে মধ্য মে থেকেই শুরু হচ্ছে বুন্দেসলিগা। স্পেনে বার্সার প্র্যাকটিসে বিশ্বসেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি যোগ দিয়েছেন। ফুটবলারদের অনুশীলন শুরু হয়েছে ইতালিতেও।

সেই পথে হেঁটে ক্রিকেট শুরুর আহ্বান জানিযেছে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের সংগঠন ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন ‘কোয়াব’। ঈদের পর স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকা প্রিমিয়র লিগ শুরুর আবেদন জানিয়েছে কোয়াব।

কোয়াবের সদস্য স’চিব দেবব্রত পাল কাল পড়ন্ত বিকেলে জাগো নিউজকে এ তথ্য জানিয়ে বলেন,

‘আজ শনিবার (গতকাল) বিকেলে কোয়াবের অনলাইন মিটিংয়ে এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। আমরা ঈদের পর স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ চালুর আবেদন করবো।’

কোয়াবের প্যাডে আনুষ্ঠানিকভাবে রোববার এ ব্যাপারে প্রিমিয়ার লিগের আয়োজক- ব্যবস্থাপক সিসিডিএমকে চিঠি দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন দেবব্রত পাল। আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে লিগ খেলার ইচ্ছে প্রকাশ করছি।

কাল শনিবার অনলাইন বৈঠকে কোয়াব সভাপতি জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয়, জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক বোর্ড পরিচালক আকরাম খান, সহসভাপতি খালেদ মাহমুদ সুজন, সাবেক জাতীয় অধিনায়ক হাবিবুল বাশার সুমন, ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল, টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক, সিনিয়র ক্রিকেটার তুষার ইমরান, জহুরুল ইসলাম অমি, এনাম জুনিয়র, নুরুল হাসান সোহান প্রমুখ অংশ নেন।

কোয়াবের বৈঠকে ক’রোনার সময় ক্ষ’তিগ্রস্ত অস্বচ্ছল ক্রিকেটার, আম্পায়ার, স্কোরার, মাঠকর্মীসহ ক্রিকেট সংশ্লিষ্টদের মধ্যে সাময়িক অর্থক’ষ্টে থাকাদের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্তও গ্রহণ করা হয়। পাশাপাশি ৫০০ থেকে ৭০০ পরিবারকে খাদ্য সরবরাহ করার সিদ্ধান্তও চূড়ান্ত হয়েছে।

প্রসঙ্গতঃ ক’রোনায় ক্ষ’তিগ্রস্ত ও সাময়িকভাবে অর্থক’ষ্টে পড়া ক্রিকেট সংশ্লিষ্টদের সাহায্য করার লক্ষ্যেই তহবিল গঠনের উদ্যোগ নিয়েছিল ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন (কোয়াব)।

সংগঠনটির সদস্য স’চিবের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, তারা এই ক’রোনার সময় যে তহবিল গঠন করার উদ্যোগ নিয়েছিলেন তাতে ইতিমধ্যে ১৮ লাখ টাকার (১৮ লাখ ৭ হাজার ১৯১ টাকা ৯৫ পয়সা) ও’পরে জমা পড়েছে।

যার প্রায় সাড়ে ১০ লাখ টাকার জোগান দিয়েছেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার ও বিশ্ব বিজয়ী যুব দলের ক্রিকেটাররা।

আগেই জানা, প্রথম শ্রেণির ৯০ প্লাস ক্রিকেটার তাদের মাসিক বেতনের অর্থেক বেতন তুলে জমা দিয়েছেন কোয়াবের কাছে। আর আকবর আলীর বাহিনী ও টিম ম্যানেজমেন্ট মিলে তুলে দিয়েছেন ২ লাখ ৩০ হাজার টাকা। এছাড়া সাবেক ক্রিকেটার, সংগঠকরা মিলে আরও প্রায় ৮ লাখ টাকা তুলেছেন।

খুব শিগগিরই সেই অর্থ সাবেক ও বর্তমান ক্রিকেটার, কোচ, সংগঠক, আম্পায়ার, স্কোরার ও মাঠকর্মীদের মাঝে বিতরণের উদ্যোগ নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন কোয়াব সদস্য স’চিব।

Categories
Uncategorized

আমি আর মামী শু’য়ে আছি হ’ঠাৎ দেখি বাবা এসে মামীকে

আমি কথাগুলো ঠিক কোথা থেকে শুরু করবো বুঝতে পারছিনা। আমার জন্মের পর থেকে দেখে আসছি মা আর বাবার ঝ’গড়া আর মা’রামারি।

বাবা মায়ের ঝ’গড়ার কারণে তখন থেকেই আমার মে’জাজ খুব খি’টখিটে হয়ে যায়। বাবার খুব খারাপ কাজে হাত আছে, যা দেখার পর আমার মনের অবস্থা আকাশ দুই ভাগ হয়ে যাওয়ার মতন হয়।

আমি তখন ক্লাস ৫/৬ এ পড়ি। আমি আর আমার মামী শুয়ে আছি। হঠাৎ দেখি বাবা এসে মামীকে জড়িয়ে ধরছে। ঐ রাতে আমার প্রচ’ন্ড ক’ষ্ট হচ্ছিলো আর মনে হ’চ্ছিল রাত যেন শেষই হয়না।

কয়েক বছর পর আমার ছোট ভাই এক দু’র্ঘটনায় মা’রা যায়। সে চলে যাওয়ার পর আমি খুব একা হয়ে গিয়েছিলাম, ধীরে ধীরে জানতে পারি আমি নাকি তাদের আসল স’ন্তান না।

এটা জানার পর আমি আরো ভে’ঙ্গে পড়ি। এসএসসি দেওয়ার পর আমি নিজেকে সামলানোর চে’ষ্টা করি কিন্তু বার বার হেরে যেতে থাকি। ওদিকে মা বাবার ঝ’গড়া আরো বাড়তে থাকে।

আমাদের ঘরে যত কাজের লোক রাখা হত সবার সাথে বাবা (father) মানে ওই জানোয়ারটা দৈ’হিক স’ম্পর্ক স্থা’পন করত। এইচএসসি’র আগে আমি ঘর থেকে বের হয়ে যাই

কিন্তু মা কান্নাকাটি শুরু করলে আবার ফিরে আসি। আমি এই ন’রক থেকে বাঁচতে চাই। আমার পরীক্ষা চলাকালীন সময় মা ছোটেবেলায় আমাকে যেভাবে এনেছিলো সেভাবে আরেকটি শিশুকে দত্তক আনে। আমি বুঝে পাই না, যেখানে আমাদের পরিবার ঠিক নেই সেখানে এই নি’ষ্পাপ বা’চ্চাটিকে কেন তিনি এনেছেন।

বা’চ্চাটার প্রতি এখন মায়া জমে গেছে। কিছুদিন আগেও আমরা বাইরে গিয়েছিলাম। এসে শুনি আমাদের কাজের ছেলেকে ঐ জা’নোয়ারটা শা’রীরিকভাবে ব্য’বহার করেছে। শুনে, আমি চিৎ’কার করে ছোটবেলায় দেখা জঘন্য কাজের কথাগুলো বলি। আমার মা আমাকে অ’বাক করে দিয়ে বলেন, সে আমাদের আরো অনেক নারী আত্মীয়র স’ঙ্গেই এমনটা করেছে।

তার টাকা আছে বলে সবার মুখ ব’ন্ধ করে রাখে। যদিও পরে সব ই জানাজানি হয়। আমি একটা রাত ও ঘুমাতে পারিনা। কাঁ’দতে কাঁ’দতে এখন চোখের জল ও শুকিয়ে গেছে। মায়ের অবস্থাও ভালোনা। দিন দিন অসু’হয়ে যাচ্ছেন। আমি বারবার বলেছি ঘর থেকে বের হয়ে যাই কিন্তু মা রাজী হচ্ছেন না। মা একটি হাসপাতালের না’র্স। চলার মত যথে’ষ্ট টাকাও আছে। তবুও তিনি এখানেই আছেন।

আমি এই ন’রক থেকে মুক্তি চাই। ছোট ভাইটাকে শিক্ষিত করতে চাই। এই বাচ্চাটিকে এই ন’রকে রেখে তার ভবিষ্য’ৎ অ’ন্ধকার করতে চাইনা। আমি কী করবো এখন?”নাম প্রকাশে অনি’চ্ছুক একজন জানিয়েছেন নিজের সম’স্যার কথা।পরামর্শ: আপু। খুব কষ্ট লাগল তোমার চি’ঠিটি পড়ে। তুমি লেখোনি যে এই মু’হূর্তে কীসে পরছ বা কী করছ। সেটা বললে উত্তর দিতে সুবিধা হতো আমার। যাই হোক আপু, প্রথম কথা

হচ্ছে তুমি নিজে খুব সা’বধান থাকো। সবচাইতে ভালো হয় হলে বা হোস্টেলে চলে গেলে। যে লোক কাজের ছেলেকেও রে’প করতে পারে, তার জন্য তোমাকে রে’প করা কোন বিষয় না। এই মুহূর্তে সেই বাড়িতে তুমিই সবচাইতে রি’স্কে আছো। তাই সবার আগে নিজেকে নি’রাপদ করার চেষ্টা করো। আর যেভাবেই হোক আপু, স্ব’নির্ভর হয়ে উঠতে চেষ্টা করো। লেখাপড়া শেষ না হয়ে থাকলে পার্ট টাইম জব বা টিউশনি করতে পার।

Categories
Uncategorized

কাশ্মীরের সীমান্তে উড়ছে পাকিস্তানি যু’দ্ধবিমান মহাবিপদে ভারত

কা’শ্মীরের হা’ন্ডওয়ারায় স’ম্প্রতি ভারতীয় সেনা বা’হিনীর জওয়ানদের ওপর হা’মলা চালিয়েছিল পা’কিস্তানে আ’শ্রিত জ’ঙ্গিরা।

তারপরই প্র’ধানমন্ত্রী মোদি বলেন, নিহত জওয়ানদের আ’ত্মত্যাগ বৃথা যাবে না! এরপর কয়েকদিন ধরেই কা’শ্মীর সী’মান্তের আকাশে উড়ছে পা’কিস্তানি যু’দ্ধবিমান।

ভারতীয় সং’বাদমাধ্যমের বরাতে এ তথ্য জানা গেছে। জানা গেছে, হা’ন্ডওয়ারায় ভারতীয় সেনার ওপর জ’ঙ্গি হা’মলার ঘটনার পর থেকেই আ’তঙ্কে রয়েছে পা’কিস্তান।

ন’রেন্দ্র মোদির বার্তার পর থেকে তারা ভারতের পক্ষ থেকে পাল্টা হা’মলার আ’শঙ্কায় রয়েছে।

তাই কা’শ্মীরের আকাশে পা’কিস্তানি যু’দ্ধ বিমানের উড়ে যাওয়ার ছবি বারবার দেখা যাচ্ছে। কা’শ্মীর নিয়ে দিল্লি বেশ চি’ন্তিত। আর তা প্রমাণ হয়ে গেল শনিবার দি’ল্লিতে অজিত ডোভালের হাইভোল্টেজ বৈ’ঠকে। যেখানে দেশের সিডিএস থেকে সেনা প্রধা’নরা সকলেই হাজির ছিলেন।

আর সা’ম্প্রতিককালে কা’শ্মীর প’রিস্থিতি নিয়ে সেখানে আলোচনা হয়। যেভাবে সা’ম্প্রতিককালে হাল না ছেড়ে দিয়ে ভারতীয় সেনা হিজবুল ক’মান্ডার রিয়াজ নাইকুকে খুঁজে বের করে নিকেশ করেছে , সেই অপরেশনের প্র’শংসায় প’ঞ্চমুখ হন অজিত ডোভাল।

এক্ষেত্রে কা’শ্মীর পুলিশেরও প্রশংসা করেন তিনি আলাদা করে। পাশাপাশি নি’রাপত্তা নিয়ে বেশ কয়েকটি প’রামর্শ দিয়েছেন প্রা’ক্তন এই গোয়েন্দা । কা’শ্মীরে যেভাবে নিজে থেকে দুটি নতুন জ’ঙ্গি সংগঠন গড়ে উঠেছে,তাতে বেশ উ’দ্বিগ্ন দি’ল্লি।

এই সং’গঠনকে বাগে পেতে সেনা ও পুলিশকে স্থা’নীয়দের স’ঙ্গে আরও বেশি যোগাযোগ রাখার বার্তা দিয়েছেন অজিত ডোভাল। পি’রপাঞ্জাল পিস ফাউন্ডেশন ও টিআরএফ জঙ্গিদের যাতে ধরা যায়, তার জন্য স্থা’নীয়দের স’ঙ্গে সখ্যতা বজায় রেখে আরও নিবিড় ত’থ্য আদায়ের ওপর জোর দেন জাতীয় উপদেষ্টা। সুত্র: কালের কন্ঠ

Categories
Uncategorized

সুধু সি’ঙ্গাপুরেই বাংলাদেশই করোনা আ’ক্রান্তদের সংখা দাঁড়াল ২৯৬২ জনে

যু’ক্তরাজ্যে গত ৪৮ ঘণ্টায় আরও ১৯ জন বাংলাদেশি মারা গেছেন। এর ফলে এখন পর্যন্ত যু’ক্তরাষ্ট্রে ১৭৪ জন এবং যু’ক্তরাজ্যে ৭৯ জন বাংলাদেশি মারা গেছেন। করোনাভাইরাসের সং’ক্রমণে যু’ক্তরাষ্ট্র ও যু’ক্তরাজ্যে বাংলাদেশের নাগরিকদের মৃ’ত্যু অব্যাহত আছে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় যু’ক্তরাষ্ট্রে আরও ৭ জন বাংলাদেশি মারা গেছেন।

সি’ঙ্গাপুরের স্বাস্থ্য ম’ন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত রোববার পর্যন্ত দেশটিতে ২ হাজার ৯৬২ জন বাংলাদেশি ক’রোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক থেকে প্রবাসী বাংলাদেশি ও কূটনৈতিক সূত্র এবং লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে আজ সোমবার এ তথ্য পাওয়া গেছে।আর সিঙ্গাপুরে ২হাজার ৯৬২ জন বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আ’ক্রান্ত হয়েছেন।

তাঁদের মধ্যে বড় অংশটি হচ্ছেন বৃহত্তর লন্ডনের। স্থানীয় বাংলাদেশ কমিউনিটি মারা যাওয়া ব্যক্তিদের স্বজন, স্থানীয় গ’ণমাধ্যমসহ বিভিন্ন সূত্র থেকে এ সংখ্যার তথ্য পাওয়া গেছে। লন্ডন থেকে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনীম গতকাল তিন দিন ধরে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। সোমবার পর্যন্ত অন্তত ৭৯ জন বাংলাদেশি মারা গেছেন।

ইতালির রোম থেকে বাংলাদেশের রা’ষ্ট্রদূত আবদুস সোবহান শিকদার পর্যন্ত ইতালিতে ক’রোনাভাইরাসের সং’ক্রমণে ৮ জন বাংলাদেশি মারা গেছেন। এঁদের মধ্যে ৭ জন মিলানে এবং একজন রোমে মারা গেছেন। আর আক্রান্তের সংখ্যা ৭৫ জনের মতো।

গতকাল রোববার পর্যন্ত যু’ক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সৌদি আরব, কানাডা, ইতালি, স্পেন, কাতার, সুইডেন, কুয়েত, সং’যুক্ত আরব আমিরাত, কেনিয়া, লিবিয়া ও গা’ম্বিয়া—এই ১৩ দেশে ২৯৭ জন বাংলাদেশি ক’রোনাভাইরাসের সং’ক্রমণে মারা গেছেন। এঁদের মধ্যে যু’ক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ইতালি বাদ দিলে সৌদি আরবে ১৫, কানাডায় ৬, স্পেনে ৫, কাতারে ৪ এবং সুইডেন, সং’যুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, কেনিয়া, লিবিয়া ও গাম্বিয়ায় ১ জন করে বাংলাদেশি মারা গেছেন।

এদিকে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ সিঙ্গাপুরে ক’রোনাভাইরাসে বিদেশিদের আ’ক্রান্ত হওয়ার ঘটনা বেড়েই চলছে। এর সঙ্গে বাড়ছে বাংলাদেশের নাগরিকদের আক্রান্তের সংখ্যা।তবে ইতালিতে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের মতে, দেশটিতে কয়েক শ বাংলাদেশি ক’রোনাভাইরাসের সং’ক্রমণের শিকার হয়েছেন।

অবশ্য গতকাল এক দিনেই দেশটিতে নতুন করে আরও ১ হাজার ৪২৬ জন আক্রান্ত বলে জানিয়েছে দেশটির স্বা’স্থ্য মন্ত্রণালয়। এঁদের মধ্যে ১৬ জন সি’ঙ্গাপুরের নাগরিক, বাকিরা বিভিন্ন দেশের। আ’শঙ্কা করা হচ্ছে, আক্রান্তদের মধ্যে বাংলাদেশের নাগরিকদের সংখ্যা বেশি।

Categories
Uncategorized

আকাশসীমায় যু’দ্ধবিমান মোতায়েন, পাকিস্তান-চীনকে একসাথে প্রতিহত করবে ভারত!

উত্তর সিকিমে চীন ও ভারত সে’নাদের মধ্যে চলা উ’ত্তেজনার মধ্যেই লাদাখে সী’মান্তের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার (এলএসি) খুব কাছে চীনা সা’মরিক হেলিকপ্টার চলে আসে। এর পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে যু’দ্ধ বিমান মোতায়েন করেছে ভারত। মঙ্গলবার (১২ মে) ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম বলা হয়, লাদাখ সী’মান্তের খুব কাছে চীনা হেলিকপ্টার দেখতে পেয়ে ভারতের যু’দ্ধবিমান তাদের তাড়া দেয়। অন্যদিকে পাকিস্তানও ভারত সী’মান্তে সে’নাসজ্জা করছে। ভারত একই সাথে পাকিস্তান ও চীনের আ’ক্রমণ প্রতিহত করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

ভা’রত-চীন সীমান্তে যু’দ্ধ পরিস্থিতি, আকাশে ফাইটার হেলিকপ্টার ভা’রত-চীন সীমান্তে উত্তে’জনা বাড়ছে। সীমান্তের খুব কাছে চীনা সে’নাবাহিনী অর্থাৎ পিপলস লিবারেশন আর্মির একটা হেলিকপ্টারকে উড়তে দেখা গিয়েছে। মাটির খুব নীচ দিয়ে এই হেলিকপ্টারের উপস্থিতি ভা’রতের উদ্বেগ বাড়িয়েছে। যদিও চীনা ভূপৃষ্টে সেই কপ্টারের উপস্থিতি ছিল। কিন্তু ঝুঁ’কি এড়াতে ভা’রতীয় বায়ু সে’নার একটা কপ্টারকে এ সময় উড়ানো হয়।

এনডিটিভি সে’না সূত্রে জানায়, চীনা কপ্টারের ওপর নজরদারি করতে এই উদ্যোগ। দুই দেশের বায়ুসে’নার ওই বিমান সীমা লঙ্ঘন করেনি। দু’টি কপ্টারই নিজেদের ভূপৃষ্টের ওপর ছিল। এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, লাদাখের এলএসি বরাবর এই অঞ্চলে গত সপ্তাহে দুই দেশের পদাতিক বাহিনীর সক্রিয়তা ঘিরে উত্তে’জনা বেড়েছিল।

যদিও বেশ কয়েক মাস পর এভাবে ভা’রত-চীন সীমান্তে ফের উত্তে’জনা বাড়ল, জানিয়েছে মন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় বলে, এলএসিতে পিএলএ শান্তি-স্থিতি বজায়ে কাজ করে। দুই দেশের উচিত দ্বিপাক্ষিক আলোচনার মাধ্যমে সীমান্ত সমস্যা সমাধান করা। আম’রা সবসময় ভা’রতীয় সে’নার সঙ্গে সমন্বয় রেখেই সীমান্ত ব্যবস্থা মজবুত রাখি।

Categories
Uncategorized

এ’ইমাত্র পাওয়া খবর আগামীকাল কি’ভাবে পাবেন স’রকারি নগদ ২৫০০ টাকা: বি’স্তারিত

দুর্যো’গ ব্য’বস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেছেন, ‘ক’রোনাভা’ইরাস প্রা’দুর্ভাব য’তোদিন থাকবে স’রকার জ’নসাধারণকে ত’তোদিন মা’নবিক ত্রাণ সহা’য়তা দিয়ে যাবে। ইতোমধ্যে ১ কোটি ৩৬ লাখ প’রিবারকে মা’নবিক ত্রা’ণ স’হযোগিতার আ’ওতায় আনা হয়েছে। যার মাধ্য’মে ক’রোনাভা’ইরা’সের কারণে ক্ষ’তিগ্রস্ত, ক’র্মহীন অ’সহায় ও দরিদ্র ৫ কোটি মানুষ স’রাসরি স’রকারের বি’শেষ সুবিধা ভোগ করবে।’

বুধবার দুপুরে সা’ভারের রা’জাশন এলাকায় সেন্ট পিটার্স স্কুল ও অধর চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অ’সহায় দুস্থ মা’নুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ শেষে সাং’বাদিকদের স’ঙ্গে আ’লাপকালে তিনি এ কথা বলেন।প্র’তিমন্ত্রী বলেন, ‘মা’ননীয় প্র’ধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরিবার পিছু আ’ড়াই হাজার টাকা করে ৫০ লাখ প’রিবারের জন্য নগদ আ’র্থিক স’হযোগিতা ব’রাদ্দ করেছেন।

আগামী ১২ জুন থেকে এই টাকা ‘উ’পকারভো’গীদের মোবাইল এ’কাউন্টে পৌছে যাবে।’ এ সময় প্রতিমন্ত্রী ২০০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন। সেখানে প্রত্যেককে ১০ কেজি চাল, ২ কেজি আলু, এক লিটার তেল, এক কেজি পেঁয়াজ, এক কেজি ডাল, এক কেজি লবন ও একটি সাবান প্রদান করেন।’

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উ’পস্থিত ছিলেন সাভার উপজেলা নির্বাহী ক’র্মকর্তা পার’ভেজুর রহমান, ঢাকা জেলা আও’য়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ স’ম্পাদক মাসুদ চৌধুরী, প্র’কল্প বা’স্তবায়ন কর্ম’কর্তা একরামুল হক, সা’ভার মডেল থানার ওসি এএফএম ‘সায়েদ প্রমুখ।

Categories
Uncategorized

বাবার চোখে করোনাক্রান্ত মেয়ে…

আমার মেয়ে ডাঃ সামিয়া নাজনীন করোনা আক্রান্ত।
সে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত শিশুদের সুস্থ করে তুলতে গিয়ে তাদের সেবায় একাত্ব হয়ে এমনভাবে নিজেকে উৎসর্গ করে যে,সে নিজেই এ রোগের শিকার হয়ে পড়ে।ক’দিন ধরে গায়ে জ্বর আসাতে বাসায় সে নিজেকে আলাদা রাখে এবং পরে পরিক্ষা করালে রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

আমার ফুলের মত কোমল মেয়ে। গতরাতে রিপোর্ট পাওয়ার পর কেঁদে কেঁদে চোখ ফুলিয়ে ফেলেছে।ওর মাও কাঁদছে অবিরত । মা মেয়ে কারো চোখে ঘুম নেই । আমি কাঁদতে পারছি না । আমার ভিতরে রক্তক্ষরণ হচ্ছে দলা দলা কান্না পাকিয়ে উঠছে কিন্তু চোখ ফেটে বের হতে পারছে না।

আমার মেয়ে তার বাপের খাসলত পেয়েছে । আমি সারাজীবন জনসেবা করার চেষ্টা করেছি। অন্যের সেবায় জীবন উৎসর্গ করেছি । রাজনীতি, সাংবাদিকতা যখন যা করেছি সমস্ত মন প্রান দিয়ে করেছি। পরের কাজে জীবনটা বিলিয়ে দিয়েছি, কোন ফাঁকি রাখি নি। নিজের স্বার্থ নিয়ে কোনদিন মাথা ঘামাই নি । যখন যে কাজ করেছি তাতে ষোলআনা উজাড় করে দিয়েছি।নিজেকে এমনভাবে কাজের মধ্যে ডুবিয়ে দিয়ে কখন জীবনের শেষপ্রান্তে এসে পৌঁছেছি টেরই পাই নি ।

শেষ বেলায় হিসেব করে দেখছি আমার হিসেবের ঘরে ফাঁকি। আমি একজন ব্যর্থ মানুষ । আমার প্লট নেই, ফ্ল্যাট নেই,গাড়ি নেই বাড়ি নেই, ব্যাংক ব্যালান্স নেই।আমার ছেলেমেয়েদের ইউরোপ আমেরিকায় পড়াতে পারি নি। আমার মেয়েও আমার মত আত্মবিস্মৃত হয়ে করোনা রোগিদের সেবা করতে যেয়ে নিজের শরীরে করোনা ভাইরাস ঢুকিয়েছে।

আমার সকল মুরব্বী, মুক্তিযুদ্ধের সহযোদ্ধা, রাজনৈতিক জীবনের নেতা,রাজনৈতিক সহকর্মী, সিনিয়র, জুনিয়র, বন্ধু, ছোট ভাইয়ের মত আমি যাদেরকে পরিচর্যা করে জীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে সাহায্য করেছি,তারা এবং আমার সহযোগি সাংবাদিক-সকলের প্রতি আমার সকরুন মিনতি, আমার মেয়েটাকে সুস্থ করে তুলতে কারো কোন করনীয় থাকলে, সাহায্যের উদার হস্ত নিয়ে এগিয়ে আসুন, আমি চিরকৃতজ্ঞ থাকবো।আমার মেয়ে এখন শ্বশুরবাড়িতে কোয়ারান্টাইনে বাস করছে।আমি মুক্তিযুদ্ধে জিতেছি,আশা করি আমার মেয়েও করোনা যুদ্ধে জিতবে।

Collected : Nasir Uddin

Categories
Uncategorized

একটানা ৭ দিন সব যানবাহন চলাচল বন্ধ ঘোষণা

করোনা ভাইরাসের আক্রমণে থমকে গেছে বাংলাদেশ। জনগণকে করোনার হাত থেকে বাঁচাতে এবার একটানা সাতদিন যাববাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিল সরকার। ঈদের আগের চারদিন ও পরের দুইদিন মিলিয়ে মোট সাতদিন যান চলাচল বন্ধ থাকবে। বুধবার (১৩ মে) সন্ধ্যায় এ তথ্য জানানো হয়। আরো বলা হয়, এসময় শুধু জরুরি সেবার গাড়ি চলবে।

একই ঘোষণায় সাধারণ ছুটি ৩০ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জারি করা এই বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এবারের ঈদের কোনো সরকারি কর্মচারী নিজের কর্মস্থল ত্যাগ করতে পারবেন না।

করোনা ভাইরাসের আক্রমণে থমকে গেছে বাংলাদেশ। জনগণকে করোনার হাত থেকে বাঁচাতে এবার একটানা সাতদিন যাববাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিল সরকার। ঈদের আগের চারদিন ও পরের দুইদিন মিলিয়ে মোট সাতদিন যান চলাচল বন্ধ থাকবে। বুধবার (১৩ মে) সন্ধ্যায় এ তথ্য জানানো হয়। আরো বলা হয়, এসময় শুধু জরুরি সেবার গাড়ি চলবে।

একই ঘোষণায় সাধারণ ছুটি ৩০ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জারি করা এই বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এবারের ঈদের কোনো সরকারি কর্মচারী নিজের কর্মস্থল ত্যাগ করতে পারবেন না।

Categories
Uncategorized

কোভিড-১৯: নিউ ইয়র্কে বাংলাদেশিদের বর্তমান অবস্থা

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে আরও একজন বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। মৃত বাংলাদেশির নাম মতিউর রহমান (৬৭)। তিনি নিউ ইয়র্ক সিটির কুইন্সে বসবাস করতেন। বাংলাদেশে তার বাড়ি সিলেটের বিয়ানিবাজারে।

হাসপাতাল এবং স্বজনের উদ্ধৃতি দিয়ে বাংলাদেশ সোসাইটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুর রহিম হাওলাদার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মতিউর রহমানসহ এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসে মৃত বাংলাদেশির মোট সংখ্যা দাঁড়াল ২২০ জনে।

এদিকে, নিউ ইয়র্ক রাজ্যে গত কয়েকদিন মৃত্যুর সংখ্যা কমলেও রোববারের তুলনায় সোমবার ৩৪ জন বেশি মারা গেছেন। তবে এ সংখ্যা ২০০ জনের কম হওয়ার পাশাপাশি নতুন রোগীর হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা অনেক কমেছে বলে জানিয়েছেন স্টেট গভর্নর অ্যান্ড্রু ক্যুমো।

নিয়মিত প্রেসব্রিফিংকালে স্টেট গভর্নর জানান, সোমবার মারা গেছে ১৯৫ জন। আগের দিন এ সংখ্যা ছিল ১৬১।

Categories
Uncategorized

এবার মুনাফা দিতে পারবে না ১৭টি ব্যাংক

এই ব্যাংকগুলোর অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে জানা গেছে বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন নিয়ম অনয়ায়ী ২০১৯ সাল শেষে ১৭টি ব্যাংক লভ্যাংশ দিতে পারবে না। কারণ কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে নেয়া সুযোগ-সুবিধা সমন্বয়ের পর ব্যাংকের মূলধন সংরক্ষণের হার ১০ শতাংশের নিচে নেমে আসবে। এই ব্যাংকগুলোর মধ্যে ৭টিই সরকারি ব্যাংক। মুনাফা ঘোষণার পর তা বণ্টন না করলে ব্যাংকগুলোর হাতে ৫-৬ হাজার কোটি টাকা থাকবে। গত ১১ মে ঘোষিত নীতিমালার আওতায় মূলধনের ওপর ভিত্তি করে ব্যাংকগুলোকে ৪টি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে।

প্রত্যেক ক্যাটাগরির মুনাফা ঘোষণার পরিমাণ বেধে দেয়া হয়েছে। তবে এ মূলধন হতে হবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছ থেকে কোনো ধরনের সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ ছাড়াই। কোনো ব্যাংক সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করলে তা সমন্বয় করে মূলধন হিসাব করতে হবে। খেলাপি ঋণ ও সাধারণ ঋণের বিপরীতে প্রভিশন সংরক্ষণ ব্যর্থ হলে সেই ব্যাংক মুনাফা ঘোষণা করতে পারবে না। সুযোগ-সুবিধা সমন্বয়ের পর যেসব ব্যাংকের মূলধন ১০ শতাংশের নিচে নেমে আসবে তারা ২০১৯ সালের ডিসেম্বরভিত্তিক মুনাফা বণ্টন করতে পারবে না। ২০১৯ সালের ১২টি ব্যাংকের প্রভিশন ঘাটতি এবং ১২টি ব্যাংকের মূলধন ঘাটতি ছিল। উভয় মিলে ১৭টি ব্যাংক মুনাফা ঘোষণাই করতে পারবে না।

পুঁজিবাজারে নিবন্ধিত ৩০টি ব্যাংকের মধ্যে মাত্র ৯টি ছাড়া সব ব্যাংক মুনাফা ঘোষণা করতে পারবে। এই ২১টি ব্যাংকের মধ্যে একটি ব্যাংক ছাড়া বাকি ২০টি ব্যাংকের মূলধন ১২ দশমিক ৫০ শতাংশের ওপরে। এই ব্যাংকগুলো নীতিমালা অনুসারে সর্বোচ্চ মুনাফা ঘোষণা করতে পারবে। তারা নগদ ১৫ শতাংশসহ ৩০ শতাংশ লভ্যাংশ দিতে পারবে। তবে তাদের মধ্যে বেশকিছু ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছ থেকে ছাড় গ্রহণ করে ২০১৯ সালে মুনাফা দেখিয়েছে। এসব ব্যাংকের ছাড় সমন্বয় করে মুনাফা হিসাব করতে হবে।

২০১৯ সালের সমাপ্ত বছরে যেসব ব্যাংক লভ্যাংশ ঘোষণা করে ফেলেছে তারা বাংলাদেশ ব্যাংক ঘোষিত শর্তের সঙ্গে সমন্বয় করবে। শর্ত পূরণ হলেও ৩০ সেপ্টেম্বরের আগে তা বিতরণ করতে পারবে না। ইতিমধ্যে তালিকাভুক্ত ছয়টি ব্যাংক ২০১৯ সালের সমাপ্ত বছরের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন নীতিমালায় বলা হয়েছে, প্রভিশন সংরক্ষণসহ অন্যান্য ব্যয় মেটানোর জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ডেফারেল সুবিধার অধীন নয় (প্রভিশন সংরক্ষণে বাড়তি সময় নেয়নি যে ব্যাংক) এমন ব্যাংকের মূলধনের পরিমাণ ঝুঁকিভিত্তিক সম্পদের সাড়ে ১২ শতাংশ বা তার বেশি হলে সামর্থ্য অনুসারে ওই ব্যাংক সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ নগদসহ ৩০ শতাংশ লভ্যাংশ দিতে পারবে।