Categories
Uncategorized

চলুন জেনে নেয়া যা’ক- কমলা মানব শ’রীরে দু’র্দান্ত উ’ৎস কেন?

ছোট বড় সবাই পছন্দ করে কমলা। ভিটামিন সি এর দু’র্দান্ত উৎস হলো কমলা। আমাদের ত্বক ভালো রাখার জন্য ভিটামিন সি জ’রুরি। শ’রীরের কোনো টিস্যু ক্ষ’তিগ্রস্ত হলে তা সারাতে সাহায্য করে এই ভিটামিন। কমলা যদি মিষ্টিও হয়, তবু এটি এড়িয়ে যাবেন না। ওজন কমানোর ক্ষেত্রে সাহায্য করে বিভিন্ন ফল। কমলাও সেরকমই একটি ফল। এবারের শীতে ওজন ক’মানোর জন্য খেতে পারেন কমলা। শীতে কেন প্রতিদিন কমলা খাওয়া জ’রুরি, চলুন জেনে নেয়া যাক-

কমলায় ক্যালরি বেশ কম। এতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন সি এবং অন্যান্য খাদ্যগুণ। একটি মাঝারি আকারের কমলার মধ্যে থাকে- ৫০ ক্যালোরি, ০.৯ গ্রাম প্রোটিন, ১৬.২ গ্রাম কা’র্বোহাইড্রেট, ৩.৪ গ্রাম ফাইবার, ২৩৮ মিলিগ্রাম পটাসিয়াম, ৬১ মিলিগ্রাম ক্যা’লসিয়াম, ১৭ মিলিগ্রাম ফসফরাস এবং ৬৩.৫ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি।

নিয়মিত কমলা খেলে দ্রুত ওজন কমে। তবে কীভাবে? কমলায় পানির পরিমাণ বেশি থাকে। এই ফলের প্রায় ৮৭ শতাংশই পানি। তাই এই ফল শরীর আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে। শীতে নিয়মিত কমলা খেলে শরীরে পানির অভাবে টান পড়বে না।

কমলায় আছে প্রচুর ফাইবার। এর ফলে বাওয়েল মুভমেন্ট ভালো হয় এবং পেট প’রিষ্কার হয়ে যায়। ওজন কমাতে হলে পেট পরিষ্কার হওয়া জরুরি। ফাইবার বেশি থাকায় একটা কমলা খেয়ে বেশি কিছুক্ষণ পেট ভর্তি থাকে।

গবেষণা বলছে কমলার মধ্যে যে পানিতে দ্রবীভূত ভিটামিট সি থাকে, তা ওজন কমাতে অত্যন্ত উপযোগী। পাশাপাশি এই ভিটামিন সি শরীরের ফ্যাট বার্নিং প্রক্রিয়াকে সক্রিয় করে। এই প্রসঙ্গে আরও বলা যেতে পারে যে সব ফলই প্রাকৃতিকভাবে মিষ্টি। কখনো খুব মিষ্টি কিছু খেতে ইচ্ছে করলে আপনি নির্ভয়ে একটি কমলা খেয়ে নিতে পারেন।

নিয়মিত কমলা খেলে শরীরে যা ঘটে-

একজন মানুষের প্রতিদিন যে পরিমাণ ভিটামিন-সি প্রয়োজন, তার প্রায় পুরোটাই একটি কমলায় পাওয়া যায়।

মানবদেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা ইমিউনিটি সিস্টেম মজবুত করে তুলতে কমলা দারুণ উপকারী।

তাছাড়া ঠাণ্ডা লাগা, কানের সমস্যা দূর করতে ভীষণ উপকারী কমলা। কমলায় রয়েছে বিটা ক্যারোটিন। যা শরীরের কোষের ক্ষয় রোধে সাহায্য করে।
লিমোনয়েড নামে এক ধরনের পদার্থ রয়েছে কমলালেবুতে যা মুখ, ত্বক, ফুসফুস, স্তন, পাকস্থলীতে ক্যানসার প্রতিরোধে দারুণ সহায়ক।

মস্তিষ্কের বিকাশের জন্য জরুরি উপাদন ফলিক অ্যাসিডও যথেষ্ট পরিমাণে থাকে কমলায়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, কমলায় থাকে ভিটামিন বি৬। যা মানবদেহে প্রয়োজনীয় হিমোগ্লোবিন তৈরি করে।

কার্ডিওভাস্কুলার সিস্টেমে ভারসাম্য বজায় রাখতে ভীষণ সহায়ক কমলালেবু। কমলা খেলে খিদে বাড়ে, খাওয়ার রুচি তৈরি হয়।

শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতেও কমলার জুড়ি মেলা ভার।

লিভার কিংবা হার্টের বিভিন্ন রোগে কমলা খুবই উপকারী। হাইপারটেনশনের রোগীদের ক্ষেত্রেও কমলা খেলে উপকার মেলে।

তবে শুধু কমলার কোয়াতেই নয়; এর খোসাতেও রয়েছে অনেক গুণ। যেমন, কমলার খোসা রূপচর্চায় অত্যন্ত উপকারী।

কবিরাজ: তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- নারী ও-পুরুষের সকল প্রকার- জটিল ও গো’পন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ওষুধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ – রাত ১১ )

স্কিনে ব্ল্যাকহেডস দূর করতে সহায়ক পাঁকা কমলার খোসা।

তাছাড়া কমলার খোসা একেবারে প্রাকৃতিক উপায়ে দাঁতের হলদে ভাব দূর করে। তাই কমলার তাজা খোসা বেঁটে টুথপেস্টের মতো ব্যবহার করা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *