Categories
Uncategorized

কা’শিমপুর কেন্দ্রী’য় কা’রাগারে ক’য়েদির পোশা’কে সেই মিন্নির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় সাড়া ফেলেছে

বরগুনার সেই আলোচিত ঘটনা এখনো দেশের মানুষ ভোলেনি। সে দিন দিনে দুপুরে সবার সামনে শেষ করা হয়েছে রিফাত শরীফকে। এরপর এই ঘটনার সাথে জড়িত বেশ কয়েকজন কে গ্রে’ফতার করা হয় এবং তাদের মধ্যে কয়েকজন কে সর্বোচ্চ শা’স্তি দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে রায় ঘো’ষণা করা হয়। তবে এই মামলা’য় সব থেকে বড় মোড় নেয় প্রধান সাক্ষী থেকে মিন্নিকে সর্বচ্চো শাস্তি দেওয়ার নির্দেশে। আর তাকে সর্বোচ্চ শা’স্তি দেওয়ার নির্দেশ দেওয়ার পর থেকে কা’’রাগারে নেওয়া হয়। তবে এবার মিন্নির একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় সাড়া ফেলেছে।

কা’’শিমপুর কেন্দ্রীয় কা’রাগারে পাঠানো হয়েছে আলোচিত রিফাত শরফের ঘটনার মামলা’য় স’র্বচ্চো শা]স্তি প্রাপ্ত আসামি ও রিফাত শরীফের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে। বৃহস্পতিবার( ২৯ অক্টোবর) সকালে তাকে বরগুনা জেলা কা]রাগার থেকে কা]শিমপুর মহিলা কেন্দ্রীয় কা]রাগারে পাঠানো হয়। এদিকে কা]রাগারে কয়েদির পোশাক পড়া মিন্নির একটি ছবি বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। যেখানে ভিন্ন রূপে দেখা যায় মিন্নিকে।

ছবিতে দেখা যায়, একটি কক্ষে কয়েদির সাদা শাড়ি পড়ে বেঞ্চের উপর বসে আছেন মিন্নি। তার চেহারায় ক্লান্তির ছাপ লক্ষ্য করা গেছে। এদিকে কয়েদির পোশাক পড়া মিন্নির ছবিটি নিয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে ব্যপক তোলপাড় শুরু হয়েছে। উল্লেখ ২০১৯ সালের ২৬ জুন সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে রিফাত শরীফকে শেষ করে নয়ন বন্ডের কিশোর গ্রুপ বন্ড-০০৭-এর সদস্যরা।

ই সময় স্ত্রী মিন্নি ঘটনাস্থলেই ছিলেন। একইদিন বিকেলে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মা’/’/’রা যান রিফাত শরীফ।
পরবর্তীতে ওই বছরের ১ সেপ্টেম্বর রিফাত শরীফ হ’/’/’ত্যা মামলায় রিফাতের স্ত্রী মিন্নিসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশিট দেয় পুলিশ। একইসঙ্গে রিফাত হ’/’/’ত্যা মামলার এক নম্বর আসামি নয়ন বন্ড কে শেষ করা হলে তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

চলতি বছরের ১ জানুয়ারি রিফাত হ’/’/’ত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালত। ৮ জানুয়ারি একই মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বরগুনার শিশু আদালত।
এরপর গত ৩০ সেপ্টেম্বর দুপুরে রিফাত শরীফ হ’/’/’ত্যা মামলায় মিন্নিসহ ছয়জনের মৃ’’ত্যু’’’দ’’ণ্ড ও চারজনকে খালাস দেন বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আসাদুজ্জামান। রায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।

কবিরাজ: তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- নারী ও-পুরুষের সকল প্রকার- জটিল ও গো’পন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ওষুধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ – রাত ১১ )

এছাড়া ২৭ অক্টোবর দুপুরে আলোচিত এ মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির মধ্যে ৬ জনকে ১০ বছর, ৪ জনকে ৫ বছর ও একজনকে ৩ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে বরগুনার শিশু আদালত। এছাড়া তিন আসামিকে খালাস দেয়া হয়েছে।

এদিকে, এই আসামিদের দ্রুত সর্বচ্চো শাস্তি দেখতে চান রিফাত শরীফের পরিবার। আর এই আসামিদের মধ্যে সর্বোচ্চ শাস্তির রায় দেওয়া মিন্নিকে বর্তমানে কাশিমপুর মহিলা কারাগারে নেওয়া হয়েছে।তবে তাকে সেখানে নেওয়ার পর তার এই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পরে। আর এই সময় তাকে অনেকটা হতাশা গ্রস্ত মনে হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *