Categories
Uncategorized

এই ফলটির ভেতরে মজুত রয়েছে প্রচুর মাত্রায় পুষ্টিকর উপাদান।

এমন একটি ফল রয়েছে যার উপকারিতা এতোটাই বেশি যে আপনাকে হয়তো আর ডাক্তারের শরণাপন্ন না হলেও চলবে। সেই ফলটি হল জাম। আসলে এই ফলটির ভেতরে মজুত রয়েছে প্রচুর মাত্রায় পুষ্টিকর উপাদান। যেমন ধরুন ভিটা’মিন সি,কে,বি৬, ফলেট, পটা’শিয়াম, কপা’র, সোডি’য়াম এবং ম্যা’ঙ্গানিজ। সেই সঙ্গে রয়েছে অ্যা’ন্টিঅক্সি’ডেন্ট, যা শরীর এবং ত্বককে চাঙ্গা রাখার পাশাপাশি ব্রেন পাওয়ার বাড়াতে এবং ক্যা’ন্সারের মতো রোগকে দূরে রাখতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। তবে ভাববেন না এখানেই শেষ। এই সুস্বাদু ফলটিকে প্রতিদিন খেলে আরো যেসব উপকার পাবেন সেগুলো হল…

১) হা’ড় শক্তপোক্ত হয়: ভেতর থেকে হা’ড়কে শক্তপোক্ত রাখতে জামের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। আসলে এই ফলটির ভেতরে উপস্থিত ক্যাল’সিয়াম, আ’য়রন, ম্যাগ’নেসিয়াম, ফ’সফরাস, জি’ঙ্ক এবং ভি’টামিন কে নানাভাবে হা’ড়ের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়। ফলে নানাবিধ হা’ড়ের রোগে আ’ক্রান্ত হওয়ার আশ’ঙ্কা আর থাকে না বললেই চলে।

২) র’ক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে: এ বিষয়ে বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে নিয়মিত এক বাটি করে জাম খাওয়া শুরু করলে শরীরে এমন কিছু উপাদানের প্রবেশ ঘটে, যার প্রভাবে ইনসুলিনের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পেতে সময় লাগে না। ফলে স্বাভাবিকভাবেই র’ক্তে শর্করার মাত্রা নিয়’ন্ত্রণের বাইরে যাওয়ার আর কোনও আশ’ঙ্কা থাকে না বললেই চলে।

৩) চুলের সৌন্দর্য বাড়ে: চুল পড়ে যাওয়া বা খুশকি হওয়া একটি বড় সমস্যা। চুলের জমতে থাকা মৃ’ত কোষেদের সরিয়ে ফেলে চুলের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে এই ফলটির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। আসলে জামের অন্দরে উপস্থিত ভিটা’মিন বি এবং প্রঅ্যা’ন্থোসায়ানিডিন্স এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

৪) হা’র্টের ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়: স্বাস্থ্য সচেতন সবাই জানেন যে, গত এক দশকে আমাদের দেশে কিভাবে কম বয়সিদের মধ্যে হা’র্টের রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে জাম খাওয়ার প্রয়োজন যে আরও বেড়েছে এই বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। আসলে এই ফলটিতে উপস্থিত একাধিক উপকারি উপাদান একদিকে যেমন ব্লা’ড প্রেসারকে স্বাভাবিক রাখে, তেমনি র’ক্তে উপস্থিত খারাপ কোলে’স্টেরলের মাত্রাও কমায়। ফলে হা’র্টের কোনও ধরনের ক্ষ’তি হওয়ার আশ’ঙ্কা একেবারে কমে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *