Categories
Uncategorized

জেনে নিন, শীতে পা ফাটা রোধের সহজ উপায়

শীতকাল হানা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই যে সব সমস্যা আমাদের চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়ায়, তার অন্যতম পা ফাটা। শীতে শুষ্ক আবহাওয়ার কারণে শরীরের ত্বকের আর্দ্রতা কমে যায় ও তা ফাটতে থাকে। পায়ের পাতায় এর প্রভাব পড়ে সবচেয়ে বেশি। অনেকের আবার পা ফেটে রক্তও বেরতে থাকে। ফাটা পা যেমন দেখতে খারাপ লাগে তেমনই তা কষ্টদায়কও।পায়ের পাতার উপর সারা শরীরের ভর পড়ে, পথেঘাটে ধুলোর সবচেয়ে কাছাকাছি থাকে শরীরের এই অংশই।

তাই এমনিতেই পায়ের পাতার জন্য অতিরিক্ত যত্নের প্রয়োজন হয়। কিন্তু শরীরের নানা যত্ন নিলেও দুর্ভাগ্যজনক ভাবে পায়ের পাতার দিকে খুব একটা নজর দিই না আমরা অনেকেই। তারই মাশুল গুনতে হয় শীত কাল এলে। তবে যদি চান, তবে এই শীতেও আপনার পায়ের তলা থাকতে পারে নরম ও তেলা। খরচও খুব নামমাত্র। সহজলভ্য দু’-তিনটি উপাদানই এর জন্য যথেষ্ট। এই উপায়ে পায়ের যত্ন নিলে গোটা শীতকাল পা তো ফাটবেই না।

বরং রুক্ষ ও ফেটে যাওয়া ত্বকের অংশও মোলায়েম হয়ে উঠবে। জানেন কী স‌েই উপায়?একটি পাত্রে নারকেল তেল বা অলিভ অয়েল নিন। এতে মিশিয়ে নিন গরম গলানো মোম। এ বার মোম জমে যাওয়ার আগেই ঈষদুষ্ণ এই মিশ্রণ লাগিয়ে রাখুন পায়ের তলায়। তবে এর পর খুব বেশি হাঁটাচলা করবেন না, তাই রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এই প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে পারলে ভাল হয়। সকালে উঠে পায়ে জমে যাওয়া মোম-তেলের মিশ্রণ ফেলে দিয়ে ধুয়ে নিন পা। শীতে প্রায় রোজই এই উপায়ে যত্ন নিতে পারেন পায়ের তলার।

এতে পা ফাটা দূর হওয়ার সঙ্গে পায়ের তলা পরিষ্কার ও নরম থাকবে। আরও ভাল ফল পেতে সপ্তাহে দু’-তিন দিন এই মিশ্রণের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা মধুও মেশাতে পারেন।পায়ের নিচে অনেক স্নায়ু থাকে। তাই এই উষ্ণ মিশ্রণ সেখানে মাখালে তার প্রভাবে শরীর গরম থাকে, ঘুমও ভাল হয়। এ ভাবেই সারা দিন পরিশ্রমের পর রাতে ঘুমনোর আগে মিনিট পাঁচেক সময় আর পকেটসই খরচেই এ বার শীতে পায়ের তলাকে রাখুন আরামদায়ক ও মসৃণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *