Categories
Uncategorized

অবসর প্রাপ্ত ডিআইজি’র বাড়ী থেকে এক নারীর লা’শ উদ্ধা’র

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার বাসিন্দা পুলিশের অবসর প্রাপ্ত অতিরিক্ত ডিআইজি সৈয়দ মনিরুল ইসলামের গ্রামের বাড়ি থেকে পিয়াসা বেগম (৫০) নামে এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। খবর পেয়ে বুধবার (১৯ আগস্ট) রাতেই উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের বাজড়া গ্রামে অবসরপ্রাপ্ত ওই পুলিশ কর্মকর্তার বাড়ির নিচতলার একটি কক্ষ থেকে ওই মহিলার লা’শ উ’দ্ধার করে। আজ বৃহস্পতিবার লা’শের ম’য়না ত’দন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ম’র্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

জানা গেছে, নি’হত পিয়াসা বেগম গোপালপুর ইউনিয়নের মৃ’ত্যু বজলু মোল্লার স্ত্রী। তাদের বদরুল মোল্লা (৩৫) নামে একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। নি’হত পিপাসা বেগম ওই পুলিশ কর্মকর্তার বাড়িতে একা থাকতেন এবং ওই বাড়ির দেখভাল করতেন। নি’হত পিয়াসা বেগমের বড় ভাই মহিউদ্দনীর মিয়া বলেন, ‘আমার বোন এ বাড়িতে একাই থাকতেন, সকাল থেকে আমরা ফোন দিয়েছি, কিন্তু সে ফোন রিসিভ করেনি।

ভেবে ছিলাম হয়তো কাজে ব্যস্ত আছে তাই ফোন ধরছে না। কোন খোজ না পেয়ে রাতে বাড়ির বাউন্ডারির মধ্যে প্রবেশ করে তার নাম ধরে ডাকলেও তার কোন সাড়া শব্দ নেই। তখন বাড়ির পিছনের দরজা খোলা দেখে, সেখান দিয়ে প্রবেশ করে ভিতরে আমার বোনকে মৃ’ত্যু অবস্থায় দেখতে পাই। পরে আমরাই পুলিশকে খবর দেই। তিনি জানান, আমার বোনের গলায় আ’ঘাতের চিহ্ন দেখতে পেয়েছি। আমাদের ধারনা, বোনকে কেউ মেরে রেখেছে। আমরা এই ঘটনা সুষ্ঠু তদন্ত চাই।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় বাড়ির মালিক অ’বসরপ্রাপ্ত অ’তিরিক্ত ডি’আইজি সৈয়দ মনিরুল ইসলাম জানান, ‘নি’হত নারী দীর্ঘদিন যাবত আমাদের সাথে রয়েছে। সে আমাদের পরিবারের সদস্যের মতই ছিল। খবর পেয়ে আমার পরিবারের সবাই ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি এসেছি। তিনি জানান, স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের কাছে দাবী জানাচ্ছি, এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রকৃত ক্লু বের করার, হ’ত্যাকাণ্ড হলে যে বা যারাই এর সাথে জড়িত তাদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *