Categories
Uncategorized

এই স্বাস্থ্যমন্ত্রীর জন্য ‘পাগলের তেল’ চান রিজভী

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ‘বাংলাদেশ থেকে করোনা এমনিতেই চলে যাবে’ এই বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি আরো বলেছেন, ‘এই স্বাস্থ্যমন্ত্রী ‘উদ্ভট’ এক লোক। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্য পড়ে এক ভদ্রলোক আমাকে বললেন যে, কোনো পাগলের তেল-টেল থাকলে একটু স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছে পাঠিয়ে দেওয়া দরকার। যাতে তার এই আবোল-তাবোল বলার যে পাগলামীটা এটা যেন কমে।

যে কোনো জায়গা থেকে পাগলের তেল তার কাছে পাঠিয়ে দিলে সবচেয়ে ভালো হয় এবং দেশের মানুষ উপকৃত হয়।’ মহামারিকালে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ে জাহিদ মালেক গতকাল শনিবার এক সভায় বলেছিলেন, ‘ভ্যাকসিনের প্রয়োজন হবে কি না জানি না। কোভিড-১৯ এমনিতেই বাংলাদেশ থেকে চলে যাবে। তার ওই বক্তব্য নিয়ে বিশেষজ্ঞদের সমালোচনার মধ্যে রবিবার (১৬ আগস্ট) এক আলোচনা অনুষ্ঠানে এই প্রসঙ্গ টানেন বিএনপি নেতা রিজভী।

তিনি বলেন, ‘গ্রামে-গঞ্জে তৃণমূলে করোনার ব্যাপ্তি এত তীব্র হয়েছে যেটি চিন্তা করা যায় না। আমি কয়েকদিন আগে উত্তরবঙ্গে কয়েকটি জেলা সফর করে এসছি। আগে যেগুলো মহকুমা ছিল, নতুন জেলা হয়েছে, সেখানে কোনো চিকিৎসা নেই। আমার দেশের বাড়ি কুড়িগ্রাম। সেখান থেকে চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যেতে হচ্ছে রোগীদের।’

যে ব্যক্তিটি চিকিৎসার জন্য রংপুর গেছেন তিনি একজন নামকরা আইনজীবী, দেশের প্রথম নারী পিপি ছিলেন। প্রথমে বলা হয়েছে তার হার্টে সমস্যা হয়েছে। পরে বিকেলে নিয়ে যাওয়ার পর মারা গেছেন। টেস্ট করে দেখা গেলো তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। এই বিভীষিকা সর্বত্র’, বলেন তিনি।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে দৈনিক বুলেটিন প্রচার বন্ধ করে দেওয়ার সমালোচনাও করেন বিএনপির এই জ্যেষ্ঠ নেতা। তিনি বলেন, ‘প্রতিদিন ব্রিফিং করে বললেও তো মানুষ কিছু জানতে পারছে। এটাতে সরকার মনে করছে, তারা বিব্রত হচ্ছেন। এজন্য ব্রিফিং তারা বন্ধ করে দিয়েছেন।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতির সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘এই স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কারণে গোটা স্বাস্থ্য খাতে নৈরাজ্য বিরাজ করছে। চোর-ডাকাত-জালিয়াত-ঠকবাজে ভর্তি স্বাস্থ্য খাত।’

ফাউন্ডেশনের নেতা আবদুল করীমের সভাপতিত্বে ও মীর হেলালের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী, জাসাসের ওবায়দুর রহমান চন্দ্ন, সালাউদ্দিন ভুঁইয়া শিশির, ইথুন বাবু, জাকির হোসেন রোকনও বক্তব্য দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *