Categories
Uncategorized

হাদীস শরীফে নারী

নারীদের জিহাদ হল হজ্ব

عن عائشة أم المؤمنين رضي الله عنها استأذنت النبي صلى الله عليه وسلم في الجهاد، فقال : جهادكن الحج.

উম্মুল মুমিনীন আয়েশা রা. বলেন, আমি (অন্য রেওয়ায়াতে আছে, আমরা) রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কাছে জিহাদের অনুমতি চাইলাম। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, তোমাদের জিহাদ হল হজ্ব।-সহীহ বুখারী, হাদীস : ২৮৭৫

আলোচ্য হাদীসে জিহাদের প্রতি নারীদের আগ্রহের কথা ফুটে উঠেছে। ইমাম বুখারী রহ. এ অধ্যায়ের শিরোনাম দিয়েছেন جهاد النساء নারীদের জিহাদ। অর্থাৎ নারীদের জিহাদ হল হজ্ব। কারণ বিভিন্ন হাদীস থেকে এ কথা স্পষ্ট যে,নারীদের উপর জিহাদ ফরজ নয়। আবার হাদীস শরীফে এ কথাও এসেছে যে, জিহাদ সর্বোত্তম আমল। এখন জিহাদের মত সর্বোত্তম আমলের ফযীলত শুধু পুরুষরাই লাভ করবে এমনটি নয়; বরং হজ্ব আদায়ের মাধ্যমে নারীরাও এ ফযীলত লাভ করতে পারবে।

جهادكن الحج

‘তোমাদের জিহাদ হলো হজ্ব’-এ কথা বলে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এ দিকেই ইঙ্গিত করেছেন। হযরত আয়েশা রা. থেকে বুখারীর আরেক বর্ণনায় এসেছে, তিনি বলেন, হে আল্লাহর রসূল! আমরা দেখছি জিহাদ সর্বোত্তম আমল। আমরাও জিহাদে যেতে চাই। তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, (তোমাদের জন্য) সর্বোত্তম জিহাদ হল হজ্জে মাবরুর। -সহীহ বুখারী, হাদীস : ১৫২০

আরেক হাদীসে এসেছে আয়েশা রা. বলেন, হে আল্লাহর রসূল! নারীদের উপর কি জিহাদ আছে? রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, হাঁ, এমন জিহাদ যাতে কোনো লড়াই নেই-হজ্ব ও ওমরাহ।-সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস : ২৯০১

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

নারীদের জিহাদের ফযীলত লাভ করার আগ্রহকে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম স্বাগত জানিয়েছেন। তবে সাথে সাথে বলে দিয়েছেন; কোন্ আমল করলে তারা সর্বোত্তম আমল জিহাদের ফযীলত লাভ করতে পারবে। জিহাদের মধ্যে যেমন অনেক প্রতিকূল পরিস্থিতির মোকাবেলা করতে হয় তেমনি হজ্বের মধ্যেও বিভিন্ন প্রতিকূল পরিবেশের সম্মুখীন হতে হয়। এই কষ্ট সহ্য করে ধৈর্য্যের সাথে যদি নারীরা হজ্ব আদায় করেন তাহলে তারাও জিহাদের ফযীলত লাভ করবেন।

এ হাদীসে সামর্থ্যবান নারীর বেশী বেশী হজ্ব করার ফযীলতের প্রতিও ইঙ্গিত পাওয়া যায়। আরেক বর্ণনায় এসেছে, হযরত আয়েশা রা. বলেন, হে আল্লাহর রসূল! আমরা কি আপনাদের সাথে জিহাদে বের হব না? তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, (না,তোমাদের জন্য) উত্তম ও সুন্দর জিহাদ হজ্ব, মাবরূর হজ্ব। আয়েশা রা. বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর এ বাণী শোনার পর থেকে আমি হজ্ব ছাড়িনি।-সহীহ বুখারী, হাদীস : ১৮৬১

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *