Categories
Uncategorized

রাস্তায় স্ত্রী’কে নিয়ে বা’জে মন্তব্য, সঙ্গে সঙ্গে ছু’রি মে’রে হ’ত্যা

যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে স্ত্রীকে উ’ত্ত্যক্ত করায় প্রকাশ্যে ছু’রিকাঘাতে মাইক্রোবাস চালককে খু’ন করেছেন এক স্বামী। রবিবার (২৮ জুন) দিন-দুপুরে এ হ’ত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। নি’হত মাইক্রোবাস চালক রিপন হোসেন (৩০) বাঘারপাড়ার মহিরন গ্রামের প্রশিকার মোড় এলাকার মনিরুল ইসলামের ছেলে। হ’ত্যাকাণ্ডে জড়িত বরকত উল্লাহ খান (২৮) নামে ওই স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক বরকত যশোর শহরের বারান্দি মোল্লাপাড়া এলাকার মাহফুজুর রহমানের ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রোববার দুপুরে বরকত উল্লাহ ও তার স্ত্রী পিংকি খাতুন বাঘারপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে অবস্থান করছিলেন। এ সময় পিংকিকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন মাইক্রোবাস চালক রিপন। বিষয়টি নিয়ে বরকত উল্লাহর সঙ্গে কথাকাটাকাটি হয় রিপনের।

একপর্যায়ে রিপনকে ছু’রিকাঘাত করেন বরকত। তাকে ঠেকাতে এসে আহত হন স্থানীয় ওষুধ ব্যবসায়ী হিরু আহমেদ। পরে স্থানীয় লোকজন রিপন ও হিরুকে উদ্ধার করে হা’সপাতালে নিলে রিপনকে মৃ’ত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। আহত হিরুকে হা’সপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন বরকতকে আটক করে গ’ণপিটুনি দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। প্রকাশ্যে হ’ত্যাকাণ্ডের ঘটনায় স্থানীয় লোকজন তাৎক্ষণিক সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বাঘারপাড়া বাজারে মিছিলও করে স্থানীয় জনতা।

বাঘারপাড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আল মামুন বলেন, স্ত্রীকে উ’ত্ত্যক্ত করার সূত্র ধরে ছু’রিকাঘাতে এ হ’ত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনায় জড়িত বরকত উল্লাহ খানকে আটক করা হয়েছে। তার স্ত্রীও পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নি’য়ন্ত্রণে এনেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *