Categories
Uncategorized

ভারতের সঙ্গে বৈঠক ফলাফলশূন্য, লাদাখের কাছে আরও সেনা শক্তি বাড়াচ্ছে চিন

ভারত-চিন সংঘাতের উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে। লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলে টানা চাপ বাড়াচ্ছে চিন। প্রতিদিন সীমান্তে কাছে সামরিক শক্তি দেখিয়ে ভারতকে পিছু হটাতে চেষ্টা করছে তবে ভারত কড়া মোকাবিলার ক্ষেত্র তৈরি করেছে।

বর্তমানে চিন মিলিটারি সীমান্তের যে এলাকায় রয়েছে সেখান থেকে ভারতের অংশে ঢুকতে মাত্র কয়েকঘণ্টা লাগবে। লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলের বিভিন্ন জায়গায় ভারতের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়াচ্ছে চিন।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই একাধিকবার মুখোমুখি হয়েছে ভারত-চিন। তবে ফিংগার ফোর অঞ্চলে বিশাল সংখ্যায় চিন সেনা শক্তি প্রদর্শন করে দুটি রাস্তা এবং লেকের রুটের ব্যবহারে ক্ষমতা কায়েম করার চেষ্টা করেছে তবে তা সফল হয়নি।

সূত্রের খবর, মে মাসের শুরুর দিক থেকে ব্রিগেডিয়ার স্তরে ভারত-চিন একাধিকবার বৈঠকে বসেছে তবে কোনও লাভ হয়নি। পরিবর্তন হয়নি পরিস্থিতির। এবার সমাধান খুঁজতে মেজর জেনারেল স্তরে কথা বলতে চলেছে দুই দেশ।

আরও খবর, “সময় নিয়ে পায়ের তলার মাতো শক্ত করছে চিন। এত মিলিটারি শক্তি এবং সামরিক শক্তি নিয়ে চিনকে শক্তি প্রদর্শন করতে অনেকবছর দেখা যায়নি”।

চিনকে পাল্লা দিতে লাদাখ সেক্টরের উঁচু এলাকাগুলিতে বিশাল সংখ্যায় সেনা মোতায়েন করছে ভারতও। চিনের ৫০০০ সেনার সমান-সমান ছবি তুলে ধরার জন্য এতটুকু বসে নেই ভারত।

তবে চিনকে কিছুটা হলেও কাবু করেছে ভারত। দেশের মাটির কোনওদিকেই চিন সেনার ঢুকতে না পারার সব ব্যবস্থা করা হয়েছে। সতর্ক রয়েছে ভারতীয় সেনা।

ভারতের ভেতরে দ্রুত ঢুকে পরে হামলা চালানোর প্ল্যানে ছিল চিন তবে সময়মতন সেনা মোতায়েন করা যাওয়ায় তা কিছুতা হলেও আটকানো সম্ভব হয়েছে।

তবে এও জানা গিয়েছে, চিন এতটুকু পিছু হটতে রাজি হয়নি বা ভারতের অরাজি হওয়ার ক্ষেত্র বিবেচনা করার কোনও নমুনা দেখা যায়নি।

ভারত-চিন বৈঠকে শুধুই বিরোধিতা দেখা গিয়েছে, চিন শুধুই ভারতকে কোণঠাসা করা চেষ্টা করছে। মুলত ডিবিও সেক্টরে অর্থাৎ যা কারাকোরাম পাসের কাছে যেখান থেকে ভারত-চিনের মধ্যে লাইন অফ অ্যাকচিয়াল কন্ট্রোল শুরু হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *